আইপিএলের ১৩তম ম্যাচে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে ৪৮ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। আর জয় দিয়ে পয়েন্ট টেবিলে এক লাফে ৫ থেকে ১ নাম্বার স্থানে চলে এসেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। অন্যদিকে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ৪ নাম্বার স্থানে থেকে ৬ নাম্বার স্থানে চলে এসেছে।

ম্যাচটিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ৪ উইকেটে ১৯১ রান সংগ্রহ করে মুম্বাই। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান জড়ো করতে সক্ষম হয় পাঞ্জাব।

ব্যাটম্যানদের জ্বলে উঠার দিনে বল হাতেও এদিন শুরু থেকেই দারুণ সফল মুম্বাই বোলাররা। বুমরাহ – চাহারদের বোলিংতোপে ৬০ রানের মধ্যমেই আগারওয়াল – রাহুলকে হারায় পাঞ্জাব।

এরপর প্রীতির দলের হয়ে লড়েছেন কেবল নিকোলাস পুরান। ২৭ বলে ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ব্যাট হাতে এদিনও ব্যর্থ ছিলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। সব তারকা ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ১৪৩ রানেই থামে পাঞ্জাব।

এদিন টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি মুম্বাইয়ের। কটরেলের প্রথম ওভারে শেষ বলে দলীয় শূন্য রানে ফিরেন ডি কক। তবে একপাশ থেকে দুর্দান্ত খেলতে থাকেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

৩ ছক্কা ও ৮ চারে ৪৫ বলে ৭০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিনি। এছাড়া ৩২ বলে ২৮ রান করেন কিষান। তবে শেষ টা দুর্দান্ত হয় মুম্বাইয়ের। পান্ডিয়া ও পোলার্ড মিলে ২৩ বলে ৬৭ রানের অপরাজিত জুটি গড়েন।

৪ ছক্কা ও ৩ চারে ২০ বলে ৪৭ রান করেন পোলর্ড এবং ২ ছক্কা ও ৩ চারে ১১ বলে ৩০ রান করেন পান্ডিয়া। যেখানে শেষ ওভারে ২৫ রান নেন তারা।

আইপিএলের সর্বশেষ পয়েন্ট টেবিলঃ

১। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সঃ ৪ ম্যাচ ২ জয় ২ হার ৪ পয়েন্ট ১.০৯৪ রান রেট

২। দিল্লী ক্যাপিটালসঃ ৩ ম্যাচ ২ জয় ১ হার ৪ পয়েন্ট ০.৪৮৩ রান রেট

৩। কলকাতা নাইট রাইডার্সঃ ৩ ম্যাচ ২ জয় ১ হার ৪ পয়েন্ট ০.১১৭ রান রেট

৪। রাজস্থান রয়েলসঃ ৩ ম্যাচ ২ জয় ১ হার ৪ পয়েন্ট -০.২১৯ রান রেট

৫। রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গলরঃ ৩ ম্যাচ ২ জয় ১ হার ৪ পয়েন্ট -১.৪৫০ রান রেট

৬। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবঃ ৪ ম্যাচ ১ জয় ৩ হার ২ পয়েন্ট ০.৫২১ রান রেট

৭। সানরাইজ হায়দ্রাবাদঃ ৩ ম্যাচ ১ জয় ২ হার ২ পয়েন্ট -০.২২৮ রান রেট

৮। চেন্নাই সুপার কিংসঃ ৩ ম্যাচ ১ জয় ২ হার ২ পয়েন্ট -০.৮৪০ রান রেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *