নানা নাটকীয়তার পর অবশেষে স্থগিত হয়ে গেল বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। গত কিছুদিন ধরেই এই টেস্ট সিরিজ নিয়ে দুই দেশের ক্রিকেট দলের বোর্ডের মধ্যে হচ্ছিল নানা আলোচনা। অবশেষে গত কাল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে নিজেদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিল শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ড।

কিন্তু শ্রীলঙ্কা সরকারের দেওয়া শর্ত মেনে নিয়ে এই মুহূর্তে শ্রীলঙ্কা সিরিজ সম্ভব নয় বলে আবারো জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। আজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালকদের সাথে বৈঠক শেষে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান নাজমুল হাসান পাপন।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বস বলেন, ‘শ্রীলংকা আমাদেরকে সফরের বিধি-নিষেধ নিয়ে একটি শর্ত পাঠিয়েছিল। আমরা সেটি পর্যালোচনা করে দেখেছি। সেখানে উল্লেখিত ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থেকে সফর করা সম্ভব না। ওদের জানানোর পর তারা সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে।’

‘কিন্তু ওদের সরকারের নিয়ম অনুযায়ী ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক। এটা মানতেই হবে। এই মুহূর্তে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থেকে সফর করা সম্ভব না। লম্বা কোয়ারেন্টাইন শেষে ক্রিকেট খেলার জন্য ক্রিকেটারদের মানসিক অবস্থা থাকবে না। আর তাই আমরা এখন সফরে যেতে রাজি নই। পরিস্থিতি যখন ভালো হবে তখন আমরা নতুন করে সফর নিয়ে ভাববো।’

শ্রীলঙ্কা সিরিজ স্থগিত হয়ে যাওয়ার কারণে এ বছর আর বাংলাদেশের কোন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচে নেই। তবে বসে থাকতে চায়না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। ক্রিকেটারদের মাঠে ফেরাতে ইতিমধ্যেই কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি। বিসিবির প্লানে রয়েছে দুটি টুর্নামেন্ট।

৪ থেকে ৬ টি দল নিয়ে একটি সিরিজ টুর্নামেন্ট আয়োজনের কথা চিন্তা ভাবনা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। প্রায় ৯০ জন ক্রিকেটার নিয়ে এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে চায় বিসিবি। এছাড়াও বাংলাদেশ জাতীয় দল, বাংলাদেশ এইচপি ক্রিকেট দল এবং বাংলাদেশ এ দলের ক্রিকেটারদের নিয়ে চার দলের আরও একটি টুর্নামেন্টের আয়োজন করার চিন্তা ভাবনা করছে বিসিবি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *